6th Week Assignment All Class

Dec 7, 2020 | বাংলাদেশ

6th Week Assignment All Class 6, 7, 8, 9

6th Week Assignment All Class, All Subject Bangla, English, Maths, Science Class 6, assignment class 7, assignment class 8, assignment class 9 all class assignment answer. 6th Week Assignment All Class 6, 7, 8, 9. Assignment for class 6 six, class 7 seven assignment, class 8 eight all subject assignment  Download PDF from www.kaziitzone.com website. Every Week Assignment For All Subject will update here. We are fellow www.dshe.gov.bd

6th Week assignment Class 6 All Subject

Dear student friends, Now I am bringing out the assignment solution for the sixth week. The sixth Week assignment syllabus has already been published, We are publishing the All Subject assignment in class six to nine and answering questions on our website. We have seen that all of the students want to get class 6 math assignment answers. So to dement of this subject, we have arranged this we focus on this subject keeping its importance in our head. We hope to see this work for you will be very glad. So, Share with your friends that they get class 6 all Subject assignment solutions and answering questions. Today we will discuss class six assignments in all subjects because all of the students will submit their own on the institute.TO Get class 6 assignment solution students will search the internet for class 6 assignment answers for this reason we have to arrange this post. My Dear if you are a student of class 6 if you need to be all subject assignment answers then it is the right place. So read our page carefully.

6th week class 6 Bangla assignment

ব্যাকরণ অংশঃ বাংলা ভাষা ও বিরাম চিহ্ন । 

নির্ধারিত কাজ/এ্যাসাইনমেন্টঃ (খ) নিচের অনুচ্ছেদটিতে যথাস্থানে বিরাম চিহ্ন বসিয়ে তা চলতি রীতিতে লিখঃ

সকাল বেলায় আমার নভেলের  সপ্তদশ পরিচ্ছেতে হাত দিয়াছি এম সময় মিনি আসিয়াই আরম্ভ করিয়া দিল বাবা রামদয়াল দারোয়ান কাকাকে কৌয়া বলেছিল সে কিছু জানে না নাক সে আমার লিখিবার টেবিলের পাশ্বে আমার পায়ের কাছে বসিয়া নিজের দুই হাটু এবং হাত লইয়া অতিদ্রুত উচ্চারণে আগডুম বাগডুম খেলিতে আরম্ভ করিয়া দিল আমার ঘর পথের ধারে হঠাৎ মিনি আগডুম বাগডুম খেলা রাখিয়া জানালার ধারে ছুটিয়া গেল এবং চিৎকার করিয়া ডাকিতে লাগিল কাবলিওয়ালা ও কাবলিওয়ালা ।।

6th week class 6 Math assignment

অধ্যায়ঃ ৪র্থ ,৭ম,৮ম ।

নির্ধারিত কাজ/এ্যাসাইনমেন্টঃ

প্রশ্নঃ ০১ 

5x2-2xy+3y2, x2-3xy,-y2+5xy তিনটি বীজগণিতীয় রাশি হলে-

(ক) প্রথম রাশিটির পদ সংখ্যা কয়টি ও কী কী ?

(খ) রাশি তিনটির যোগফল নির্নয় কর ?

(গ) x=3,y=2  হলে, ১ম রাশি থেকে ৩য় রাশির বিয়োগফলের মান নির্ণয় কর ?

প্রশ্নঃ ০২ 

    ABC=৬০

(ক)    ABC কে চাঁদার সাহায্যে অংকন কর ?

(খ)   ABC কে সমদ্বিখন্ডিত কর ( রুলার ও কম্পাসের সাহায্যে )?

(গ) অংকনের চিহ্ন ও বিবরণ দাও ?

প্রশ্নঃ ০৩ 

একজন শিক্ষার্থী ৪০ থেকে ৬০ পর্য্ন্ত সংখ্যাগুলোর মধ্যে নিম্নের সংখ্যাগুলো লিখল ।

৫০,৪৫,৪৮,৪৯,৬০,৫৮,৫৭,৪৫,৪৭,৪৫,৪৩,৪২,৪৭,

(ক) উপাত্তগুলোকে বিন্যন্ত কর ?

(খ) উপাত্তগুলোর গড় নির্ণয় কর ?

(গ) উপাত্তগুলোর মধ্যক ও প্রচুরক নির্ণয় কর ?

6th week class Agricultural education assignment

অধ্যায়ঃ ৩য়, ৫ম । 

নির্ধারিত কাজ/এ্যাসাইনমেন্টঃ সৃজনশীল প্রশ্ন 

১. ৬ষ্ঠ শ্রেনীর কৃষি শিক্ষা ক্লাসে মাটি বিষয়ে শিক্ষক বললেন, সব ধরনের ফসল একই ধরনের মাটিতে চাষ করা সম্ভব নয় । আলু,গম,পাট,তরমুজ,বাদাম,বাধাকপি ইত্যাদি ফসলগুলো চাষের জন্য ভিন্ন ভিন্ন বৈশিষ্টের মাটির প্রয়োজন হয় । শিক্ষক আর ও বললেন এমন এক ধরনের মাটি আছে যার অর্ধেক বালিকণা আর বাকি অর্ধেক পলিকণা ও কাঁদাযুক্ত হয় । 

(ক) উদ্দীপকের প্রদত্ত ফসলগুলো চাষের উপযোগী মাটির প্রকারভেদ অনুযায়ী তালিকা তৈরী কর ?

(খ) শিক্ষকের শেষ মন্তব্যটি কোন মাটিকে নির্দেশ করে” ব্যাখ্যাপূর্বক ধান চাষের জন্য এই মাটি উপযোগী কি-না যুক্তি দাও । 

২। তোমার এলাকায় জন্মে এমন ফুল ,ফল শাকসবজি ও মসলা জাতীয় ফসলের (পাঁচটি করে ) তালিকা তৈরী কর এবং এগুলোর অর্থনৈতিক গুরুত্ব বর্ণনা কর । 

6th week class 6 Domestic science assignment

অধ্যায়ঃ ৪র্থ ,৫ম,একাদশ ও চতুর্দশ।

নির্ধারিত কাজ/এ্যাসাইনমেন্টঃ 

রচনামূলক প্রশ্ন

১। শিশুর বিভিন্ন বৈশিষ্টের উপর ভিত্তি করে শিশুকালকে বিভাজন করার প্রয়োজন আছে কী ?  উত্তরের স্বপক্ষে যুক্তি দাও । 

সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন

২ । (ক) বাবা-মা ও শিক্ষককে কিভাবে সম্মান করা উচিৎ ?

      (খ) তোমার শ্রেনীতে একজন দৃষ্টি প্রতিবন্ধি বন্ধু আছে । তার প্রতি তোমার আচরন কেমন হবে ?

৩ । বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগের পূর্বাভাস জানার পর তুমি কি ধরণের খাবার মজুদ করবে ? কেন ? এসব খাবারকে কী বলা হয় ?

৪ । শীতের শেষে শীতকালীন পোশাকের যত্ন কিভাবে নিবে বুঝিয়ে লিখ ? 

Class 6 assignment 6th Week Answer

৬ষ্ঠ শ্রেনীর এ্যাসাইনমেন্ট সমাধান ( ৬ষ্ঠ সপ্তাহ )

Bangla Assignment Answer Class 6

সকাল বেলায় আমার নভেলের  সপ্তদশ পরিচ্ছেদে হাত দিয়েছি ।এমন সময় মিনি এসে শুরু করে দিল,“বাবা, রামদয়াল দারোয়ান কাকাকে কৌয়া বলেছিল, সে কিছু জানে না । না ” সে আমার লেখার টেবিলের পাশে আমার পায়ের কাছে বসে নিজের দুই হাটু এবং হাত নিয়ে অতিদ্রুত উচ্চারণে ‘ আগডুম-বাগডুম ’ খেলতে শুরু করে দিল । আমার ঘর পথের ধারে । হঠাৎ মিনি ‘ আগডুম-বাগডুম ’ খেলা রেখে জানালার কাছে ছুটে  গেল এবং চিৎকার করে ডাকতে লাগল,“ কাবলিওয়ালা, ও কাবলিওয়ালা ।” 

6th week class 6 Math assignment Answer

১ নং প্রশ্নের উত্তরঃ

(ক) প্রথম রাশিটির পদ সংখ্যা হলোঃ ৩ টি । যথা; 5x2, 2xy, 3y

(খ) রাশি তিনটির যোগফলঃ

১ম রাশি= 5x2-2xy+3y2

২য় রাশি= x2-3xy

৩য় রাশি= -y2+5xy

প্রদত্ত রাশি 

5x2-2xy+3y2+ x2-3xy+(-y2+5xy)

= 5x2-2xy+3y2+ x2-3xy-y2+5xy

=6x2-5xy+5xy+3y2

=6x2+2y2 (Ans.)

(গ) ১ম রাশি ৩য় রাশির বিয়োগফলঃ

5x2-2xy+3y2-(-y2+5xy)

= 5x2-2xy+3y2+y2+5xy

= 5x2+3xy+4y2

= 5.32+3.3.2+4.22 (মান বসিয়ে পাই)

= 5.9+18+4.4

= 45+18+16

= 79 (Ans.)

২ নং প্রশ্নের উত্তরঃ

৩ নং প্রশ্নের উত্তরঃ

(ক) উপাত্তগুলোর বিন্যস্তঃ ৪২,৪৩,৪৫,৪৫,৪৫,৪৭,৪৭,৪৮,৪৯,৫০,৫৭,৫৮,৬০ ।

(খ) উপাত্তগুলোর গড় নির্ণয়ঃ

আমরা জানি,

গড়=রাশিগুলোর যোগফল ÷রাশিগুলোর সংখ্যা

সুতরাং, রাশিগুলোর যোগফল=

৪২+৪৩+৪৫+৪৫+৪৫+৪৭+৪৭+৪৮+৪৯+৫০+৫৭+৫৮+৬০=৬৩৬

রাশিগুলোর সংখ্যা=১৩

গড়= ৬৩৬÷১৩

=৪৮.৯২(প্রায়)

(গ) উপাত্তগুলোর মধ্যক ও প্রচুরকঃ

উত্তরঃ ৪২,৪৩,৪৫,৪৫,৪৫,৪৭,৪৭,৪৮,৪৯,৫০,৫৭,৫৮,৬০

মধ্যকঃ এখানে লক্ষ্য করলে দেখা যায় যে,এখানে ১৩ টি সংখ্যা আছে 

আমরা জানি, মধ্যক= ১৩+ তম পদ বা ৭ম তম পদ 

সুতরাং ,সংখ্যাগুলোর মধ্যে ৭ম তম পদ হলো ৪৭ । 

প্রচুরকঃ এখানে,৪৭ আছে ২ বার ,৪৫ আছে ৩ বার , ৪৫ আছে সর্বাধিকবার । ৪৫ কে প্রদত্ত উপাত্তগুলোর প্রচুরক বলে । সুতরাং, প্রচুরক হলো প্রদত্ত উপাত্তের মধ্যে সর্বাধিকবার থাকে ।

 

৬ষ্ঠ শ্রেনীর কৃষি শিক্ষা এ্যাসাইনমেন্ট সমাধান(৬ষ্ঠ সপ্তাহ)

১নং প্রশ্নের উত্তর (ক) 

উদ্দীপকে প্রদত্ত ফসলগুলো চাষের উপযোগী মাটির প্রকারভেদ নিচে তালিকা তৈরী করা হলোঃ

গম চাষঃ গম চাষের জন্য উচু ও মাঝারি জমি বেশি উপযোগী । তবে মাঝারি নিচু জমিতে ও গম চাষ করা যায় । দো-আঁশ ও বেলে দো-আঁশ মাটি গম চাষের জন্য সর্বোত্তম ।

আলু চাষঃ আলু চাষের জন্য হালকা প্রকৃতি মাটি উপযোগী । বেলে দো-আঁশ মাটি আলু চাষের জন্য বেশি উপযোগী । 

পাট চাষঃ পাট চাষের জন্য মধ্যম ও উচু মধ্যম মাটি বেশি উপযোগী । দো-আঁশ মাটি পাট চাষের জন্য বেশি উপযোগী । 

বাদাম চাষঃ বাদাম চাষের জন্য বেলে দো-আঁশ ,দো-আঁশ ,ও বেলে মাটি বেশি উপযোগী । 

 

১ নং প্রশ্নের উত্তর (খ)

শিক্ষকের শেষ মন্তব্যটি পলি দো-আঁশ মাটিকে নির্দেশ করে । কারন আদর্শ পলি দো-আঁশ মাটিতে অর্ধেক বালিকনা ,বাকি অর্ধেক পলিকনা ,এবং কাদাযুক্ত থাকে । ধান চাষের জন্য এ মাটি উপযোগী নয় । কারণ কংকরযুক্ত পলি দো-আঁশ । এবং বেলে মাটি ছাড়া সব মাটিতে ধান চাষের উপযোগী । প্রকারভেদেও উচু,নিচু সব ধরনের জমিতেই ধান চাষ করা যায় । যেমন নিচু জমিতে বোরো এবং জলি আমন চাষ করা যায় । মাটির অম্লত্বক থেকে নিরপেক্ষ অবস্থা ধান চাষের অনুকূল । মাটিতে জৈব পদার্থ  কম হলে কম্পোস্ট ব্যববহার করে এর মাত্রা বাড়িয়ে নেয়া যায় । প্রয়োজনীয় সার ব্যবহার করে মাটির উর্বরতা বাড়িয়ে নেয়া যায় । পরিশেষে বলা যায়, উপরোক্ত গুনাগুন যেহেতু পলি দো-আঁশ  মাটিতে বিদ্যমান থাকে না । তাই এ মাটি ধান চাষের উপযুক্ত নয় ।  

২ নং প্রশ্নের উত্তরঃ

আমার এলাকায় জন্মে এমন ফল,ফুল শাকসবজি ও মসলা জাতীয় ফসলের তালিকা নিচে দেয়া হলোঃ

ফুল জাতীয় ফসলঃ  গোলাপ,গাধা,রজনীগন্ধা ,হাসনাহেনা,ও বেলি । 

ফল জাতীয় ফসলঃ কলা,লেবু,আম,জাম,আনারস ও পেয়ারা । 

শাকসবজি জাতীয় ফসলঃ আলু,লাউ,গাজর.শষা,পালংশাক,মুলা । 

মসলা জাতীয় ফসলঃ পেয়াজ,রসুন,আদা,ধনিয়া,তেজপাতা ,জিরা । 

 

ফুলের অর্থনৈতিক গুরুত্বঃ  

১। ফুল সহজে চাষ প্রক্রিয়া ও অভিযোজন যোগ্যতার কারনে এটি বহুল জনপ্রিয়তা রয়েছে । 

২। ঝুলন্ত ঝুড়ি,মালা তৈরী ,বিয়ে বাড়িতে স্টেজ সাজানো ইত্যা[দিতে উপহার হিসাবে ব্যবহৃত হয় এতে বিক্রেতা অর্থনৈতিকভাবে লাভবান হয় । 

ফলের অর্থনৈতিক গুরুত্বঃ

১। যেহেতু দেশি ফল থেকে আমরা নানা ধরনের পুষ্টি পেয়ে থাকি তই এর গুরুত্ব আমাদের জীবনের নানা ক্ষেত্রে গুরুত্বপুর্ন অবদান রাখে । 

২। ফলের উৎপাদন ,বি৮পনন ব্যবস্থা .প্রক্রিয়াজাতকরন এগুলো যেহেতু শ্রমঘন কাজ বিধায় এগুলোতে কর্মসংস্থানের সুযোগ সুষ্টি হয় । 

শাকসবজির অর্থনৈতিক গুরুত্বঃ 

১। বিদ্যমান ক্ষেত্রে শাকসবজি বিক্রয় করে অর্থনৈতিকভাবে লাভবান হওয়া যায় । 

২। শাকসবজি উৎপাদন করে কৃষিখাতের মধ্যে দিয়ে অর্থনৈতিক কর্মকান্ডে অবদান রাখা যায় । 

মসলার অর্থনৈতিক গুরুত্বঃ 

১। বিভিন্ন গুরুত্বপুর্ন অনুষ্ঠানে সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত হয় মসলা । 

২ ।  মসলার দাম নায্য থাকায় সবার ক্রয়ক্ষমতার ভিতরে থাকে । 

৬ষ্ঠ শ্রেনীর গার্হস্থ্য বিজ্ঞানের সমাধান (৬ষ্ঠ সপ্তাহের )

 

রচনামূলক প্রশ্নের উত্তরঃ ০১

শিশুর বিভিন্ন বৈশিষ্টের উপর ভিত্তি করে শিশুকাল …..বিস্তারিত নিচে

উত্তরঃ শিশুকালকে বিভাজন করা মানে হলো শিশুদের মধ্যও বৈষম্য সৃষ্টি করা । এতে করে তাদের মস্তিস্কে বিরুপ প্রভাব পরবে । শিক্ষার সুযোগ লাভ করা তাদের মৌলিক অধিকার । অধিকাংশ দেশেই সামাজিক দায়-দায়িত্বের অংশরুপে এবং অভিভাবকের দিক নির্দেশনায় কিংবা রাষ্ট্রের বাধ্যতামুলক শিক্ষানীতীর আলোকে শিশুরা বিদ্যালয়ে গমন করে । এছাড়াও ক্ষুদে শিশুরা কিন্টার গার্ডেন .প্রি-ক্যাডেট ও খেলার ছলে শৈশবকালীন প্রাথমিক শিক্ষাকে আনন্দময় ও আলোকিত করে তোলে । কিন্তু অনুন্নত দেশগুলোতে দেখা যায় মাতাপিতার সাথে শিশুদের ও শ্রমকার্যে জড়িয়ে পরতে লক্ষ্য করা যায় । আমাদের দেশে ও বিভিন্ন বৈশিষ্টের শিশু রয়েছে । প্রতিবন্ধি ,অটিষ্ট্রিক,শিশুরাও রয়েছে । তাই বৈষম্য না করে সবাইকে ভালো শিক্ষায় গড়ে তুলতে হবে । যাতে করে দেশের কোন শিশুর বৈশিষ্টগত দিকগুলো ফুটে না ওঠে । তবে বয়স অনুযায়ী শিশুদেরকে বিভাজন করা যেতে পারে । এতে কোন বিরুপ প্রভাব দেখা দেবে না । 

সংক্ষিপ্ত প্রশ্নের উত্তরঃ

(ক) বাবা-মায়ের প্রতি সম্মান

১। বাবা-মায়ের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হতে হবে । 

২। বাবা-মা যা বলে তা শুনতে হবে বা পালন করতে হবে । 

৩। বাবা-মায়ের প্রতি যত্নশীল হতে হবে । 

৪। বাবা-মায়ের অসুখ হলে সেবা করতে হবে । 

৫। বাড়ির কাজে তাদেরকে সাহায্য করতে হবে । 

শিক্ষকের প্রতি সম্মানঃ

১। শিক্ষকের প্রতি অনুগত থাকতে হবে । 

২। শিক্ষক কোন আদেশ দিলে তা পালন করতে হবে । 

৩। বিদ্যালয়ের বাড়ির কাজ শিক্ষককে সঠিক সময়ে বুঝিয়ে দিতে হবে । 

৪। শিক্ষককে প্রাতিষ্ঠানিক কাজে সাহায্য করতে হবে । 

৫। শিক্ষককের সামনে সব সময় ভাল আচরন করতে হবে । 

(খ) উত্তরঃ আমাদের প্রত্যহিক জীবনে বিভিন্ন বৈশিষ্টের শিশু রয়েছে । তাদের প্রতি আমাদের সৌহার্দ্যপূর্ন আচরন করা উচিৎ । যাতে তারা আমাদেরকে ভিন্ন চোখে না দেখে । এবং তাদের আচার-আচরনে আমাদেরকে সহনাভূতি দেখাতে হবে । যাতে তারা বুঝতে পারে তারাও আমাদের মতো স্বাভাবিক জীবনযাপন করছে । প্রতিবন্ধি বা অন্যন্য বৈশিষ্টের শিশুদের সাথে কেমন আচরন করতে হবে তা নিচে দেয়া হলো-

১। প্রতিবন্ধিদের প্রতি অসদাচরন, উপহাস,ঠাট্টা-তামাশা করা যাবে না । 

২। তাদেরকে সবসময় হাসি-খুসি রাখতে হবে । 

৩। তাদের পছন্দের জিনিসপত্র উপহার  দিতে হবে । 

৪। পছন্দের খেলনাপত্র নিয়ে তাদের সাথে খেলতে হবে । 

৫। যতটুকু সম্ভব তাদেরকে সময় দিতে হবে । 

৩ । বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগের পূর্বাভাস জানার পর তুমি কি ধরণের খাবার মজুদ করবে ? কেন ? এসব খাবারকে কী বলা হয় ?

উত্তরঃ বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগের পূর্বাভাস জানার পর আমি পানি ,মুড়ি,পাউরুটি,বিস্কুট ইত্যাদি শুকনা জাতীয় খাবার মজুদ করে রাখবো । যাতে বন্যার কোন সম্ভাবনা থাকলে দূষিত পানি পান না করে বিশুদ্ধ পানি পান করা যায় । এবং বন্যায় বাড়ি,ঘর ডুবে গেলে নিরাপদ স্থানে গিয়ে যেন এসব খাবার খেয়ে ক্ষুদা নিবারন করা যায় ।

 ৪ । শীতের শেষে শীতকালীন পোশাকের যত্ন কিভাবে নিবে বুঝিয়ে লিখ ? 

উত্তরঃ শীতকাল শেষ হলেই শীতকালকে বিদায় জানানোর পালা । শীতকাল এলেই নানা ধরনের শীতের পোশাক নিয়ে এক্সপেরিমেন্ট চলতেই থাকে । তেমনি শীতকাল চলে গেলে শীতের পোশাকগুলো  একটু যত্ন নিয়ে রাখলেই সব পোশাক গুলো ভাল থাকে । বা পরিচর্চা করলে শীতের পোশাকগুলোকে নতুনের মতো রাখা যায় । শীতের পোশাক ভাল রাখার উপায় নিচে দেয়া হলোঃ

১। ক্লাব সোডা দিয়ে সোয়েটার  বা কম্বল ভালভাবে পরিস্কার করা যায় । 

২। ভালভাবে ঝাকিয়ে পোশাক বা কাপড় পরিস্কার রাখা যায় । 

৩। ঠান্ড জল দিয়ে কাপড় ভাল রাখা যায় । 

৪। নিমপাতা দিয়ে কাপড় ধোয়া । 

৫। খোলা হাওয়াতে রাখা ইত্যাদি ।

0 Comments

Submit a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Adsense

Categories

জনপ্রিয় পোস্ট সমূহ

Pin It on Pinterest

Share This