free coronavirus drugs Bangladesh

free coronavirus drugs Bangladesh

বাংলাদেশকে বিনামূল্যে করোনার ওষুধ দেবে জাপান

coroner drugs Bangladesh

coroner drugs Bangladesh

করোনা মহামা’রির এই দুঃ’সময়ে জাপানের ফুজিফিল্ম তয়োমা ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের উৎপাদন করা এভিগান রোগটি প্র’তিরোধে আশার আলো যোগাচ্ছে। তবে করোনাভাইরাসের বি’রুদ্ধে ব্যবহার করার জন্য জাপানের এই ওষুধটি নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা এখনও শেষ হয়নি। ওষুধটি প্রাথমিক পর্যায়ের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে করোনায় আক্রা’ন্ত বাংলাদেশিরা সীমিত আকারে বিনামূল্যে এই ওষুধটি পাবে বলে জানিয়েছে জাপান।

জাপানের টোকিও’তে অবস্থিত বাংলাদেশ মিশনের কাউন্সেলর এবং দূতালয় প্রধান (এইচওসি) ড. জিয়াউল আবেদিন শনিবার (১১ এপ্রিল) বলেন, জাপান সরকার বাংলাদেশকে জানিয়েছে যে, কোভিড-১৯ প্রতিরোধে সীমিত আকারে বিনামূল্যে এভিগান দেবে তারা।

ক‚টনৈতিক সূত্রে জানা গেছে, মার্চের ২০ তারিখে জাপান সরকারকে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে জানানো হয় যে, করোনা প্র’তিরোধে জাপানের উৎপাদিত এভিগান ওষুধ দিয়ে বাংলাদেশকে সহায়তা করা হোক। জবাবে জাপান সরকার জানায় যে, আপাতত সীমিত আকারে (সর্বনি¤œ ২০টি থেকে সর্বোচ্চ ১০০টি) বিনামূল্যে এই ওষুধ বাংলাদেশকে দেওয়া হবে।

টোকিও’র একাধিক সূত্রে জানা গেছে, ওষুধটির কার্যকারিতা এবং পার্শ্ব প্রতি’ক্রিয়াসহ সার্বিক বিষয়ে এখনও পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে। তৃতীয় ধাপের পরীক্ষা শেষে কম-বেশি ৫০টি দেশকে সীমিত আকারে এই ওষুধ দেবে জাপান। কমবেশি ৫০টি দেশে করোনা আক্রা’ন্তের ঘটনায় এভিগান ব্যবহারের ফলাফলগুলো একত্র করে ওষুধটির কার্যকারিতা যাচাই করা হবে।

এরপর যদি দেখা যায় যে, করোনার আগ্রা’সী আ’ক্র’মণ ঠে’কাতে এভিগান কার্যকর, তখনই ওষুধটি প্রচুর পরিমাণে উৎপাদন করবে জাপান। তবে সেটা কখনই বাণিজ্যিকভাবে উৎপাদন করা হবে না বলে গত মার্চে জাপান সরকার ষ্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে। তারা বলেছে যে, আক্রা’ন্ত দেশগুলোকে এই ওষুধ বিনামূল্যে দিয়ে সহায়তা করা হবে।

দেশি-বিদেশি একাধিক জার্নাল ঘেঁটে দেখা গেছে, করোনা প্রতিরো’ধে এখনও কার্যকর প্রমাণিত কোনো টিকা বা ওষুধ আবিষ্কার হয়নি। তবে ইনফ্লুয়েঞ্জা বা ফ্লুর চিকিৎসায় ব্যবহৃত এভিগান, আরবিডল, ইন্টারফেরন আলফা টুবি, ফেভিপিরাভির, লোপিনাভির, ক্লোরোনকুইনিন, রেমডেসিভিরসহ প্রায় ডজনখানক ওষুধ করোনা প্র’তিরো’ধে পরীক্ষামূলক ব্যবহার করা হয়। যার মধ্যে এভিগান এখন পর্যন্ত করোনা বিরু’দ্ধে যু’দ্ধে এগিয়ে থাকার আশা জোগাচ্ছে।

জাপানের ফুজিফিল্ম তয়োমা ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড ২০১৪ সাল থেকে ইনফ্লুঞ্জো চিকিৎসার জন্য এভিগান উৎপাদন করছে। গত ডিসেম্বরে চীনের উহানে করোনা আ’ক্র’মণ করার পর চীন সরকার গত মার্চে জানায় যে, জাপানের এভিগান ওষুধটি করোনা প্র’তিরোধে ভালো কাজ করছে।

চীনের কাছ থেকে এমন তথ্য পাওয়ার এক সপ্তাহের মাথায় জাপানের স্বাস্থ্য, শ্রম ও কল্যাণমন্ত্রী কাতসুনোবু কাতো বলেন, করোনার বিরু’দ্ধে এভিগান কতোটুকু কার্যকর তা পরীক্ষা করে দেখবে জাপান।’ জাপানের মন্ত্রীর ওই ঘোষণার পর থেকে এখন পর্যন্ত এভিগান নিয়ে পরীক্ষা চালিয়ে যাচ্ছে জাপান। তথ্য সূত্রঃ-আমাদেরসময়.কম

মাথায় প্রচন্ড খুশকি

মাথায় প্রচন্ড খুশকি

মাথায় প্রচন্ড খুশকি। নিয়মিত শ্যাম্পু ব্যবহার করি, তারপরও দূর হচ্ছে না। কী করা যেতে পারে?
খুশকির সমস্যা যেন প্রত্যেকের জীবনের একটি দৈনন্দিন সমস্যা। সমস্যাটি খুব বেশি গুরুত্বপূর্ণ না হলেও বা এটিকে আমরা খুব বেশি গুরুত্ব না দিলেও মাঝে মধ্যে কিন্তু এই মাথার খুশকি মাথা ব্যাথার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। সাধারণত বর্ষাকালে এবং শীতকালে মাথায় খুশকির প্রবণতা বাড়ে। তবে এখন সারা বছরই আবহাওয়া যে ভাবে পরিবর্তন হচ্ছে তার জন্য সব সময়েই খুশকির সমস্যা লক্ষ্য করা যায়।

আপনার ঘরে থাকা কয়েকটি জিনিস দিয়েই আপনি সহজেই এই খুশকির সমস্যার সমাধান করতে পারবেন। আসুন জেনে নিন কিভাবে ঘরোয়া পদ্ধতিতে খুশকি সমস্যা দূর করবেন অর্থাৎ খুশকি দূর করার ঘরোয়া উপায়।

চুল ঝরা ও খুশকির সমস্যা থেকে রেহাই পেতে এই কর্পূরের টোটকাটিকে কাজে লাগাতে পারেন। আপনি মাথায় নিয়মিত যে তেল ব্যবহার করেন তার সঙ্গে কর্পূর মিশিয়ে একটু গরম করে মাথার স্ক্যাল্পে মালিশ করুন। কিছুদিন এই ভাবে ব্যবহার করলে চুলের গোড়া শক্ত হয়ে চুল ঝরার পরিমাণ অনেকটা কমে যায়। চুলে শ্যাম্পু করার আগে এই তেলের মিশ্রণ মাথার তালুতে ও চুলে মাখলে এটি খুশকির সমস্যাও দূর করতে সাহায্য করবে। ক্যাম্ফর অয়েল বা কর্পূরের তেল হেয়ার মাস্কের সাথে মিশিয়ে ব্যবহার করলে চুলে সফটনেস আসে, চুল সাইন করে আর চুলের গ্রোথও হয়।
অনেক নামি দামি শ্যাম্পু ব্যবহার করেও যখন কোনো লাভ হয়নি। এরপর থেকে যখনি শ্যাম্পু করবেন তখন দুটো অ্যাসপিরিন ট্যাবলেট গুঁড়ো করে শ্যাম্পুর সাথে মিশিয়ে নেবেন। মিশ্রণটি আপনার চুলে ১-২ মিনিটের জন্য রেখে দেবেন ও তারপর ভালভাবে ধুয়ে ফেলবেন এবং সবশেষে প্লেইন শ্যাম্পু দিয়ে আবার চুল ধুয়ে ফেলবেন। তাহলেই দেখবেন কিছুদিনের মধ্যেই সুফল পেয়ে যাবেন।
চুলের খুশকি দূর করতে অলিভ অয়েলের জুড়ি নেই। অলিভ অয়েল গরম করে নিন। তারপর এতে পাতিলেবুর রস মেশান পরিমান মতো । মিশ্রণটি চুলের গোড়ায় ও তার সাথে পুরো চুলে লাগিয়ে ১ ঘণ্টা রেখে দিন। এরপর চুল ভালো করে শ্যাম্পু করে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে ২ থেকে ৩ বার এই পদ্ধতিটি প্রয়োগ করুন । খুশকি দূরের পাশাপাশি চুল হবে কোমল ও ঝলমলে। এই পদ্ধতিতে অলিভ অয়েল না থাকলে নারকেল তেলও ব্যবহার করতে পারেন।
Today Coronavirus Update Live News

Today Coronavirus Update Live News

আজকে বাংলাদেশে এবং বিশ্বজুড়ে করোনা লাইভ ফলাফল দেখুন
Bangladesh
[corona_bd_result]
Coronavirus (COVID-19) map. coronavirus worldwide news live
[cov2019all]
[cov2019map]
⇒Symptoms of Coronavirus? The virus remains dormant for 2-14 days after entering the human body. Gradually the symptoms become apparent. Symptoms of the coronary virus include fever, cough, and shortness of breath. In more severe cases, the infection may result in pneumonia or shortness of breath. However, in rare cases the disease is fatal. Early symptoms of coronary virus: Fever (100 degrees Fahrenheit or higher) Dry cough Throat Symptoms like breathing etc. Most of the symptoms are flu (influenza) or a common cold, which is much more common than Covid-19. This is why it is important to check whether a person has been infected with Covid-19. It is important to remember that the basic preventive measures are the same. These include washing hands frequently and adhering to respiratory hygiene. For example, when elbowing or using a tissue when coughing or sneezing, then drop the tissue into a nearby closed dirt box. It is important to remember that the basic preventive measures are the same. These include washing hands frequently and adhering to respiratory hygiene. For example, when elbowing or using tissue when coughing or sneezing, then drop the tissue into a nearby closed dirt box. If you get sick- To keep family members safe, stay in a separate room alone and always use a mask. If you do not need it, refrain from leaving the room. Maintain a minimum distance of 1 meter (3 feet) from healthy individuals. Wash hands frequently (with soap-water or hand sanitizer) If you have a fever/cough/shortness of breath and if you have been traveling to a country affected by Covid-19 within the last 14 days or have come in contact with someone who has been infected with the coronary virus, seek refuge at a nearby government hospital without delay.
⇒Treatment: (a) Natural foods and plenty of drinks. (B) Fever medicines (paracetamol) may be used. (C) The drugs used so far against the corona virus include protease inhibitors – such as lopinavir and ritonavir. (D) injection is being applied to interferon animals and the efficacy is being tested.
[cov2019]
কোন প্রশ্ন বা ভালো লাগলে কমেন্ট করুন এবং দেশ ও মানুষের সেবায় আমাদের সকলের মঙ্গল কামনা করতে শেয়ার করুন। আল্লাহর কাছে সকলের সুস্বাস্থ্য কামনা করি।
If you have any questions or comments and share in the service of the country and the people for the good of all of us. I wish God good health for all. Share Coronavirus Live News

Coronavirus Update Protection Tips

Coronavirus Update Protection Tips

Must-Have For Novel Coronavirus Prevention

What is a ‘novel’ coronavirus?

The new coronavirus (CoV) is a new strain of coronavirus.

The disease caused by the new coronavirus that was first identified in Wuhan, China, has been called coronavirus 2019 (COVID-19) – the term “CO” refers to corona, “VI” refers to a virus, and “D” means disease. Previously, this disease was referred to as the “2019 New Corona Virus” or “2019-nCoV”.

COVID-19 is a new virus associated with the same family of viruses as a severe acute respiratory syndrome (SARS) and some types of colds.

 

The WHO has described COVID-19 as a pandemic. what does that mean?

Prescribing COVID-19 as a pandemic is not an indication that the virus has become more lethal. It is a recognition of the geographical spread of the disease.

UNICEF prepares and responds to a COVID-19 epidemic around the world, knowing that the virus can spread to children and families in any country or society. UNICEF will continue to work with governments and our partners to stop the transmission of the virus, and to keep the children and their families safe.

There is a lot of information on the Internet. What should I do?
There are a lot of myths and misinformation about coronavirus sharing online – including how COVID-19 is spreading, how safe you are, and what to do if you are concerned about infection with the virus.

Therefore, it is important to be careful when looking for information and advice. This explanation contains information and recommendations about how to reduce the risk of infection, whether you should take your child out of school, whether it is safe for a breastfeeding woman, and precautions to take when traveling. UNICEF also launched a web portal where you can find more information and advice about COVID-19. In addition, the World Health Organization has a helpful section that addresses some of the most common questions.

It is also recommended to keep up-to-date information on travel, education and other guidance provided by national or local authorities for the latest recommendations and news.

How does COVID-19 virus spread?
The virus is transmitted through direct contact with the respiratory drops of an infected person (generated by coughing and sneezing), and touching surfaces contaminated with the virus. COVID-19 may live on surfaces for several hours, but simple antiseptics can kill it.

[cov2019all]

কম্পিউটার গেমে আসক্তি

কম্পিউটার গেমে আসক্তি

কম্পিউটার গেমে আসক্তিটা প্রায় সময়েই শুরু হয়  শৈশব থেকে এবং বেশির ভাগ সময়ই সেটা ঘটে অভিভাবকদের অজ্ঞকার কারণে । কম্পিউটার একটা  Tool এবং এটা দিয়ে নানা ধরনের কাজ করা যেতে পারে । এই প্রযুক্তি সম্পর্কে এত সুন্দর সুন্দর কথা বলা হয়েছে যে অনেক সময়ই অভিবাবকরা ধরে নেন এটা দিয়ে যা কিছুই করা হয় সেটাই বুঝি ভালো ,তাই যখন তারা দেখেন তাদের সন্তানেরা দীর্ঘ সময় কম্পিউটারের সামনে বসে আছে তারা বুঝতে পারে না তার মাঝে সতর্কতার ব্যাপার রয়েছে । কম্পিউটার গেম এক ধরনের বিনোদন এবং এই বিনোদনের নানা রকম মাত্রা রয়েছে । যারা সেটি খেলছে তারা সেটাকে নিছক বিনোদন হিসাবে নিয়ে মাত্রার ভেতরে ব্যবহার করলে সেটি যেকোনো সুস্থ বিনোদনের মতো হতে পারে । কিন্তু প্রায় সময় সেটি ঘটে না । দেখা গেছে একটি ছোট শিশু থেকে পূর্ন বয়স্ক মানুষ পর্যন্ত সবাই কম্পিউটার গেমে আসক্ত হয়ে যেতে পারে । কোরিয়ায় একজন মানুষ টানা পঞ্চাশ ঘন্টা কম্পিউটার গেম খেলে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েছিলো , চীনের এক দম্পতি কম্পিউটার গেম খেলার অর্থ জোগাড় করতে তাদের শিশু সন্তানকে বিক্রয় করে দিয়েছিলো । এই উদাহরনগুলো আমাদের মনে করিয়ে দেয় কম্পিউটার গেমে আসক্ত হয়ে যাওয়া মোটেও বিচিত্র কিছু নয় এবং একটু সতর্ক  না থাকলে একজন খুব সহজেই আসক্ত হয়ে যেতে পারে ।

Addiction damage in computer games kaziitzone

কম্পিউটার কিংবা কম্পিউটার গেমে আসক্তির বিষয়টি যেহেতু নতুন ,তাই সেগুলো নিয়ে গবেষনা এখনো খুব বেশি হয়নি । কিন্তু ভবিষ্যতে পুরো বিষয়টি নিয়ে গবেষকরা আরো নিশ্চিতভাবে দিক নির্দেশনা দিতে পারবেন ।এখনেই গবেষণায় দেখা গেছে কোনো একটা কম্পিউটার গেমে তীব্রভাবে আসক্ত একজন মানুষের মস্তিস্কের বিশেষ উত্তেজক রাসায়নিক দ্রব্যের আবির্ভাব হয় । শুধু তাই নয় যারা সপ্তাহে অন্তত ছয় দিন টানা দশ ঘন্টা করে কম্পিউটার ব্যবহার করে তাদের মস্তিস্কের গঠনেও এক ধরনের পরিবর্তন হয়ে যায় ।

কাজেই কম্পিউটার গেম চমৎকার একটা বিনোদন হতে পারে – কিন্তু এতে আসক্ত হওয়া খুব সহজ এবং তার পরিনতি মোটেও ভালো নয় , সেটা সবাইকে মনে রাখতে হবে ।

ডেঙ্গু জ্বরের লক্ষণসমূহ ও তার প্রতিকার

ডেঙ্গু জ্বরের লক্ষণসমূহ ও তার প্রতিকার

ডেঙ্গু জ্বরের লক্ষণসমূহঃ

ক্লাসিক্যাল ডেঙ্গু জ্বর সাধারণত তীব্র জ্বর ও সেই সঙ্গে সারা শরীরে প্রচন্ড ব্যথা হয়ে থাকে।জ্বর ১০৫ ফারেনহাইট পর্যন্ত হয়ে থাকে।শীিরে বিশেষ করে হাড়,কোমর,পিঠসহ অস্থি সন্ধি এবং মাংসপেশীতে তীব্র ব্যথা হয়।এছাড়া মাথাব্যথা ও চেখের পিছনে ব্যথা হয়।অনেক সময ব্যথা এত তীব্র হয় যে মনে হয় বুঝি হাড় ভেঙ্গ যচ্ছে।তাই এই জ্বরের আরেক নাম ‘‘ব্রেক বোন ফিভার”।

জ্বর হওয়ার ৪ বা ৫ দিনের সময় সারা শরীরজুড়ে লালচে দানা দেখা যায়,যাকে বরা হয় স্কিন র‌্যাশ,আনেকটা এলার্জি বা ঘামাচির মতো।এর সঙ্গে বমি বমি ভাব ,এমনকি বমি হতে পারে।রোগী আতিরিক্ত ক্লান্তিবোধ করে এবং রুচি  কমে যায়।সাধারণত ৪ বা ৫ দিন জ্বর থাকার পর তা এনিতেই চলে যায় এবং কেনো কেনো রোগীর ক্ষেত্রে এর ২ বা ৩ দিন পর আবার জ্বর আসে।একে ‘‘বাই ফেজিক ফিবার” বলে।

ডেঙ্গু মসা

ডেঙ্গু হোমোরেজিক জ্বরঃ

এই আবস্থাটাই সবচেয়ে জঠিল।এই জ্বরে ক্লাসিক্যাল ডেঙ্গু জ্বরের লক্ষণ ও উপসর্গের পাশাপাশি আরো যে সমস্যাগুলো হয়, তা হলো-

শরীরের বিভিন্ন আংশ থেকে রক্ত পড়া শুরু হয়,যেমন চামড়ার নিচে,নাক ও মুখ দিয়ে,মাড়ি ও দাত হতে,কফের সঙ্গে রক্তবমি,পায়খানার সাথে তাজা রক্ত বা কালো পাযখানা,চোখের মধে এবং চোকখের বাহিরে মহিলাদের বেলায় অসময়ে ঋতুস্রাব অথবা রক্তক্ষরণ শুরু হলে অনেক দিন পর্যন্ত রক্ত পড়তে থাকা ইত্যাদি।এই রোগের বেলায় আনেক সময় বুকে পানি,পেটে পানি ইত্যাদি দেখা দিতে পারে।আনেক সময় লিভার আক্রান্ত হয়ে রোগীর জন্ডিস ,কিডনিতে আক্রান্ত হয়ে রেনাল ফেইলিউর ইত্যাদি জটিলতা দেখা দিতে পারে।

ডেঙ্গু শক সিনড্রোমঃ

ডেঙ্গু জ্বরের ভয়াবহ রুপ হলো ডেঙ্গু শক সিনড্রোম।ডেঙ্গু হোমোরেজিক ফিবারের সাথে সার্কুলেটরী ফেইলিউর হয়ে ডেঙ্গু শক সিনড্রোম হয়।এর লক্ষণ হলো-

*রক্ত চাপ হঠাৎ কমে যাওয়া।

*নাড়ীর স্পন্দন অত্যন্ত ক্ষীণ ও দ্রুত হয়।

*শরীরে হাত পা ও আন্যান আংশ ঠান্ডা হয়ে যায়।

*প্রসাব কমে যায়।

*হঠাৎ করে রোগী জ্ঞান হারিয়ে ফেরতে পারে।এমনকি মৃত্যু পর্যন্ত হতে পার।

 

Pin It on Pinterest

My title page contents