এইচএসসি ২০২২ সপ্তম সপ্তাহের যুক্তিবিদ্যা এসাইনমেন্ট উত্তর পিডিএফ ডাউনলোড – HSC 2022 Logic 2nd Paper 7th Week Assignment Answer PDF

Sep 3, 2021 | All Assignment Answer

সারসংক্ষেপ

এইচএসসি ২০২২ সপ্তম সপ্তাহের যুক্তিবিদ্যা এসাইনমেন্ট উত্তর

এইচএসসি যুক্তিবিদ্যা ২য় পত্র ৭ম সপ্তাহের এসাইনমেন্ট উত্তর ২০২২ | দেশের সকল সরকারি বেসরকারি কলেজ সমূহের ২০২২ সালের এইচএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে ইচ্ছুক শিক্ষার্থীদের জন্য এইচএসসি পরীক্ষা ২০২২ সপ্তম সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ করেছে এ মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর। ২৯ আগস্ট ২০২১ এইচএসসি পরীক্ষা ২০২২ পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশের রুটিন অনুযায়ী সপ্তম সপ্তাহে নির্ধারিত বিষয়সমূহের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি সহ যাবতীয় তথ্য প্রকাশিত হয়। এইচএসসি যুক্তিবিদ্যা ২য় পত্র ৭ম সপ্তাহের এসাইনমেন্ট উত্তর ২০২২

Kaziitzone.Com ডটকমের পাঠকদের জন্য ২০২২ সালের এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের সপ্তম সপ্তাহের এসাইনমেন্ট এর নির্ধারিত বিষয়সমূহের প্রশ্ন, অ্যাসাইনমেন্ট লেখার নির্দেশনা এবং মূল্যায়ন রুবিক সমূহ সহ প্রত্যেকটি বিভাগের নির্ধারিত বিষয় সমূহের পিডিএফ প্রকাশ করা হলো। সপ্তম সপ্তাহের যুক্তিবিদ্যা ২য় পত্র এসাইনমেন্ট উত্তর PDF Download

এইচএসসি ২০২২ যুক্তিবিদ্যা ২য় পত্র ৭ম সপ্তাহের এসাইনমেন্ট উত্তর PDF

এখান থেকে সকল শিক্ষা বোর্ডের ২০২২ সালের এইচএসসি পরীক্ষার সপ্তম সপ্তাহের নির্ধারিত বিষয়সমূহের অ্যাসাইনমেন্ট উন্নত কোয়ালিটির পিডিএফ ডাউনলোড করতে পারবে এবং উত্তরসমূহ লেখার নির্দেশনা সমূহ দেখতে পাবে।

সরকারের গৃহীত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের লক্ষ্যে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড এনসিটিবি কর্তৃক প্রণীত ২০২২ সালের এইচএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট এর নির্ধারিত বিষয়সমূহ প্রকাশ প্রসঙ্গে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর ২৯ আগস্ট ২০২১ একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে।

নিচের ছবিতে সপ্তম সপ্তাহে নির্ধারিত ২০২২ সালের এইচএসসি পরীক্ষার অর্থাৎ দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট সমূহ বিস্তারিত উল্লেখ করা হলো এইচএসসি যুক্তিবিদ্যা ২য় পত্র ৭ম সপ্তাহের এসাইনমেন্ট উত্তর ২০২২

HSC যুক্তিবিদ্যা ২য় পত্র ৭ম সপ্তাহের এসাইনমেন্ট ২০২১

এইচএসসি ২০২২ সপ্তম সপ্তাহের এসাইনমেন্ট

উপযুক্ত বিষয় ও সূত্রের প্রেক্ষিতে জানানাে যাচ্ছে যে, চলমান কোভিড-১৯ অতিমারির কারণে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মােতাবেক পুনর্বিন্যাসকৃত পাঠ্যসূচির ভিত্তিতে শিক্ষার্থীদের শিখন কার্যক্রমে পুরােপুরি সম্পৃক্তকরণ ও ধারাবাহিক মূল্যায়নের আওতায় আনয়নের জন্য ৭ম সপ্তাহের ইংরেজি, পদার্থবিজ্ঞান, পৌরনীতি ও সুশাসন, অর্থনীতি, যুক্তিবিদ্যা, হিসাববিজ্ঞান এবং খাদ্য ও পুষ্টি বিষয়ের অ্যাসাইনমেন্ট, মূল্যায়ন রুব্রিক্সসহ প্রণয়ন করা হয়েছে; যা এতসঙ্গে প্রেরণ করা হলাে। সপ্তম সপ্তাহের যুক্তিবিদ্যা ২য় পত্র এসাইনমেন্ট উত্তর PDF Download

৭ম সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট কার্যক্রম ৩১ আগস্ট, ২০২১ খ্রি. মঙ্গলবার থেকে শুরু হবে।

কোভিড-১৯ অতিমারির কারণে সরকার প্রদত্ত স্বাস্থ্যবিধি যথাযথভাবে পালনপূর্বক বর্ণিত বিষয়ে প্রয়ােজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য নির্দেশক্রমে অনুরােধ করা হলাে।

এসএসসি 2022 ৭ম সপ্তাহ সকল বিষয়ের এসাইনমেন্ট উত্তর

এই সপ্তাহে তোমাদের ৭ টি এসাইনমেন্ট প্রকাশিত হয়েছে।

পদার্থবিজ্ঞান ২য় পত্র (এসাইনমেন্ট ৪)

ইংরেজি ১ম পত্র (এসাইনমেন্ট ৩)

পৌরনীতি ও সুশাসন ২য় পত্র (এসাইনমেন্ট ৪)

অর্থনীতি ২য় পত্র (এসাইনমেন্ট ৪)

যুক্তিবিদ্যা ২য় পত্র (এসাইনমেন্ট ৪)

হিসাববিজ্ঞান ২য় পত্র (এসাইনমেন্ট ৪)

খাদ্য ও পুষ্টি ২য় পত্র (এসাইনমেন্ট ৪)

এইচএসসি 2022 যুক্তিবিদ্যা ৭ম সপ্তাহ এসাইনমেন্ট প্রশ্ন

যুক্তিবিদ্যা দ্বিতীয় পত্র অ্যাসাইনমেন্ট এর জন্য এইচএসসি 2022 সালের পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য পুনঃনির্ধারিত সংক্ষিপ্ত পাঠ্যসূচির আলোকে যুক্তিবিদ্যা দ্বিতীয় পত্র পাঠ্যপুস্তক এর দ্বিতীয় অধ্যায়ের যৌক্তিক বিভাগ থেকে প্রশ্ন করা হয়েছে। সেইসাথে যুক্তিবিদ্যা সপ্তম সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর তৈরীর জন্য 16 নম্বর বরাদ্দ প্রদান করে নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। ছাত্র-ছাত্রীদের বাংলাদেশ মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড এর নির্দেশিত সময় অনুযায়ী যুক্তিবিদ্যা সপ্তম সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট এর নির্দেশিত প্রশ্নের উত্তর প্রদান করে নিজ কলেজে জমা প্রদান করতে হবে। সপ্তম সপ্তাহের যুক্তিবিদ্যা ২য় পত্র এসাইনমেন্ট উত্তর PDF Download

বাংলাদেশ মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে আমরা মানবিক বিভাগের ৭ম সপ্তাহের নির্ধারিত যুক্তিবিদ্যা অ্যাসাইনমেন্ট এর প্রশ্ন সংগ্রহ করে আমাদের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে প্রকাশ করেছি। যেহেতু এখানে যুক্তিবিদ্যা অ্যাসাইনমেন্টের ব্যাখ্যাসহ প্রশ্ন দেওয়া আছে তাই ছাত্রছাত্রীরা খুব সহজেই আমাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত যুক্তিবিদ্যা ২য় পত্র প্রশ্ন পড়ে খুব সহজেই এর সমাধান তৈরি করে নিতে পারবেন। নিচে এইচএসসি 2022 মানবিক বিভাগের যুক্তিবিদ্যা ২য় পত্র অ্যাসাইনমেন্ট এর প্রশ্ন দেওয়া হল।

এইচএসসি 2022 যুক্তিবিদ্যা ২য় পত্র ৭ম সপ্তম সপ্তাহ অ্যাসাইনমেন্ট প্রশ্ন

এইচএসসি ২০২২ সপ্তম সপ্তাহের যুক্তি বিদ্যা এসাইনমেন্ট

এইচএসসি ২০২২ সপ্তম সপ্তাহের যুক্তিবিদ্যা এসাইনমেন্ট উত্তর

স্তরএইচএসসি পরীক্ষা ২০২২
বিভাগমানবিক
বিষয়যুক্তিবিদ্যা ২য় পত্র
বিষয় কোড১২২
মোট নম্বর১৬
অ্যাসাইনমেন্ট নম্বর০৪
প্রশ্নের ধরনএসাইনমেন্ট
প্রতিষ্ঠানমাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তর
ওয়েবসাইটdshe.gov.bd
এসাইনমেন্ট উত্তর দেখতেএখানে ক্লিক করুন

এইচএসসি যুক্তিবিদ্যা ২য় পত্র ৭ম সপ্তাহের এসাইনমেন্ট ২০২২

অ্যাসাইনমেন্টঃ

যৌক্তিক বিভাগ বনাম অনুপপত্তি ব্যাখ্যা ও বিশ্লেষণ।

শিখনফলঃ

১. যৌক্তিক বিভাগের ধারণা ব্যাখ্যা করতে পারবে।
২.যৌক্তিক বিভাগের প্রাসঙ্গিকতা ও প্রকৃতি মূল্যায়ন করতে পারবে।
৩.যৌক্তিক বিভাগের নিয়মাবলি বর্ণনা করতে পারবে।
৪. যৌক্তিক বিভাগের নিয়ম লঙ্নজনিত অনুপপত্তিসমূহ মূল্যায়ন করতে পারবে।
৫. দ্বিকোটিক বিভাগ ব্যাখ্যা করতে পারবে।
৭. যৌক্তিক বিভাগের নিয়ম লঙ্নজনিত অনুপপত্তিসমূহ মূল্যায়ন করতে পারবে।
৮. যৌক্তিক বিভাগের নিয়মাবলি ব্যবহার করে অনুপপত্তিজনিত সমস্যার সমাধান বের করতে পারবে।

সপ্তম সপ্তাহের যুক্তিবিদ্যা ২য় পত্র এসাইনমেন্ট উত্তর PDF Download

নির্দেশনাঃ

যৌক্তিক বিভাগের প্রাসঙ্গিকতা ও প্রকৃতি

এইচএসসি যুক্তিবিদ্যা এসাইনমেন্ট সপ্তম সপ্তাহ 2022

যৌক্তিক বিভাগের সংজ্ঞা।

এইচএসসি যুক্তিবিদ্যা এসাইনমেন্ট সপ্তম সপ্তাহ 2022

যৌক্তিক বিভাগের নিয়মাবলি

এইচএসসি যুক্তিবিদ্যা এসাইনমেন্ট সপ্তম সপ্তাহ 2022

যৌক্তিক বিভাগের নিয়ম লঙ্ঘনজনিত অনুপপত্তি

এইচএসসি 2022 সালের যুক্তিবিদ্যা ২য় পত্র [৭ম সপ্তাহ] এসাইনমেন্ট উত্তর

বাংলাদেশ মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড করতে এক সপ্তাহ সপ্তাহের প্রকাশিত যুক্তিবিদ্যা ২য় পত্র অ্যাসাইনমেন্ট এর প্রশ্নের নির্দেশনা অনুযায়ী আমরা আমাদের ওয়েবসাইটের বিশেষজ্ঞ শিক্ষকমন্ডলীর মাধ্যমে নির্ভুল সমাধান তৈরি করে আমাদের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে প্রকাশ করেছে। ফলে এইচএসসি 2022 সালের পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীরা তাদের ৭ম সপ্তাহের নির্ধারিত যুক্তিবিদ্যা ২য় পত্র অ্যাসাইনমেন্টের নির্ভুল এবং পূর্ণাঙ্গ উত্তর ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

উত্তরঃ

যৌক্তিক বিভাগের প্রাসঙ্গিকতা ও প্রকৃতি

একটি মূলসূত্র বা নীতির ভিত্তিতে কোনাে শ্রেণি বা জাতিকে তার অন্তর্ভুক্ত নিম্নতর শ্রেণি বা উপজাতিতে বিভক্ত করার প্রক্রিয়াকে যৌক্তিক বিভাগ ( Logical Division ) বলে । অর্থাৎ নির্দিষ্ট নীতি বা সুত্রের ভিত্তিতে কোনাে জাতি বা উচ্চতর শ্রেণিকে তার অন্তর্ভুক্ত উপজাতি বা নিম্নতর শ্রেণিতে বিভক্ত করাই হলাে যৌক্তিক বিভাগ । ব্রিটিশ যুক্তিবিদ কেইনসের ভাষায় , ‘

বিভাজ্য পদটিকে সংজ্ঞায়িত করা যায় একটি প্রদত্ত পদের ব্যক্ত্যর্থের মধ্যে অবস্থিত ক্ষুদ্রতর দলসমূহের বর্ধিত রূপ হিসেবে । এছাড়া_একে সংজ্ঞায়িত করা যায় একটি জাতিকে তার অন্তর্গত উপজাতিসমূহে পৃথককরণ হিসেবে । যেমন : ‘ জীব ‘ একটি জাতি বা শ্রেণিবাচক পদ । এ পদকে আমরা বুদ্ধিবৃত্তি ’ নামক মূলনীতির ভিত্তিতে মানুষ ও অন্যান্য প্রাণী ‘ এ দুটি উপজাতিতে বা উপশ্রেণিতে ভাগ করতে পারি । জ্ঞানের বিভিন্ন শাখার ক্ষেত্রে যৌক্তিক বিভাগ অন্যতম সহায়ক প্রক্রিয়া । তাই যৌক্তিক বিভাগ প্রক্রিয়া অধ্যয়ন বা অনুশীলন খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয় ।

একাদশ শ্রেণির ৭ম সপ্তাহের যুক্তিবিদ্যা এসাইনমেন্ট উত্তর

যৌক্তিক বিভাগের প্রাসঙ্গিকতার উল্লেখযােগ্য কিছু দিক নিচে উল্লেখ করা হলাে :

এক : যৌক্তিক বিভাগ কোনাে জাতি এবং তার অগণিত বিভিন্ন উপজাতি অথবা একটি শ্রেণি এবং তার অন্তর্গত অন্যান্য উপশ্রেণি সম্পর্কে আমাদের সুস্পষ্ট ধারণা দেয় । যার ফলে যেকোনাে নির্দিষ্ট পদের বিভাজন সম্পর্কে সম্যক ধারণা লাভ করা যায় ।

দুই : যৌক্তিক বিভাগের মাধ্যমে আমরা বিভিন্ন জাতি এবং উপজাতির মধ্যে পারস্পরিক সম্পর্ক সম্বন্ধে জানতে পারি । বস্তৃত জাতি ও উপজাতির মধ্যকার এই সম্পর্ক জানার ফলে আমাদের জ্ঞানের পরিধি বৃদ্ধি পায় । তিন : যৌক্তিক বিভাগ আমাদের চিত্তকে সুশৃঙ্খল করতে সহায়তা করে । কেননা বিভাগ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে আমরা যেভাবে কোনাে জাতিবাচক বা শ্রেণিবাচক পদকে তার অন্তর্গত বিভিন্ন উপজাতি বা উপশ্রেণিতে বিভক্ত করি তা একটি সুশৃঙ্খল প্রক্রিয়া । এই প্রক্রিয়া আমাদের সুসংবদ্ধ চিন্তার অভ্যাস গঠনে সহায়তা করে ।

যৌক্তিক বিভাগের প্রকৃতি ( Nature of Logical Division )

সাধারণত যৌক্তিক বিভাগ প্রক্রিয়ায় যেকোনাে পদকে একটি মূলনীতির আলােকে দুটি অংশে বিভক্ত করা হয় । যুক্তিবিদ । কোহেন ও নেগেল বলেন , ব্যক্ত্যর্থের বা বিস্তৃতির দিক থেকে যৌক্তিক বিভাগ প্রক্রিয়ায় একটি শ্রেণিকে তার উপশ্রেণিসমূহে বিভক্ত করা হয় ।

যুক্তিবিদ এল , এস . স্টেবিং যৌক্তিক বিভাগ বলতে কোনাে জাতির অন্তর্গত উপজাতিসমূহের ধারাবাহিক বিভক্তকরণকে বুঝিয়েছেন । তাই বিভিন্ন যুক্তিবিদের বক্তব্যে একটি বিষয় স্পষ্ট যে , যৌক্তিক বিভাগের মাধ্যমে কোনাে জাতি বা শ্রেণিবাচক পদকে তার অন্তর্গত- উপজাতি বা নিম্নতর শ্রেণিতে বিভক্ত করা হয় । উল্লেখ্য যে , একটি জাতিকে শুধু কতগুলাে উপজাতিতে বিভক্ত করলেই যৌক্তিক বিভাগের কাজ শেষ হয়ে যায় না । বরং বিভক্ত উপজাতির প্রত্যেকটিকে আবার অপেক্ষাকৃত ক্ষুদ্রতর উপজাতিতে বিভক্ত করতে হয় ।

এভাবেই যৌক্তিক বিভাগ প্রক্রিয়ায় এমন কতগুলাে ক্ষুদ্রতম উপজাতিতে এসে উপস্থিত হতে হবে যাদেরকে আর ভাগ করা সম্ভব নয় । এক্ষেত্রে কোনাে জাতি বা শ্রেণিবাচক পদের যৌক্তিক বিভাগ করার সময় একটি মূলনীতি অনুসরণ করতে হয় । যেমন : মানুষ ‘ পদকে ‘ শিক্ষা ‘ নামক মূলনীতির ভিত্তিতে ‘ শিক্ষিত মানুষ ’ ও ‘ অশিক্ষিত মানুষ ‘ পদে বিভক্ত করতে পারি । কিন্তু একই সাথে মানুষ পদকে ‘ শিক্ষা ’ ও ‘ সততা ‘ এ দুটি মূলনীতি অনুযায়ী শিক্ষিত সৎ মানুষ ‘ ও অশিক্ষিত সৎ মানুষ ‘ পদে বিভক্ত করতে পারি না । আর যদি বিভক্ত করা হয় তাহলে অনুপপত্তির সৃষ্টি হবে । যেমন :

খ) যৌক্তিক বিভাগের সংজ্ঞা

একটি সূত্র বা নীতির ভিত্তিতে কোনাে জাতি বা উচ্চতর শ্রেণিকে তার অন্তর্গত উপজাতি বা নিম্নতর শ্রেণিসমূহে বিভক্ত করার প্রক্রিয়াকে যৌক্তিক বিভাগ ( Logical Division ) বলে । যৌক্তিক বিভাগের ক্ষেত্রে একটি মূলনীতি অনুসরণ করা হয় । যেমনঃ সভ্যতার ওপর ভিত্তি করে মানুষ ‘ শ্রেণিকে দুভাগে , ভাগ করা যায় ।

যথা— সভ্য মানুষ ও অসভ্য মানুষ । এখানে মানুষ পদকে একটি নীতির ভিত্তিতে বিভক্ত করা হয়েছে বলে এটি হলাে যৌক্তিক বিভাগ প্রক্রিয়া ।যৌক্তিক বিভাগে কোনাে পদের ব্যক্ত্যর্থের বিশ্লেষণ করা হয় । আর এক্ষেত্রে কতগুলাে নিয়ম অনুসরণ করা হয় । কিন্তু এমন অনেক ক্ষেত্র আছে যেখানে যৌক্তিক বিভাগের নিয়মগুলাে প্রয়ােগ করা যায় না । ফলে সেসব ক্ষেত্রে যৌক্তিক বিভাগ করা যায় না । তাই যৌক্তিক বিভাগ প্রক্রিয়ার সীমাবদ্ধতা রয়েছে ।

নিচে যৌক্তিক বিভাগের সীমা নির্দেশ করা হলাে :

এক: কোনাে বিশেষ ব্যক্তি বা বস্তুর ক্ষেত্রে যৌক্তিক বিভাগ । সম্ভব নয় । কেননা বিভাগ প্রক্রিয়া কেবলমাত্র জাতিবাচক বা শ্রেণিবাচক পদের ক্ষেত্রে প্রযােজ্য । অর্থাৎ যৌক্তিক বিভাগের মাধ্যমে জাতি বা শ্রেণিবাচক পদকে বিভিন্ন উপজাতি বা উপশ্রেণিতে ভাগ করা যায় । এ কারণে বিশেষ ব্যক্তি হিসেবে হাবিব , নাবিল , সুজন কিংবা বস্তু হিসেবে টেবিল , চেয়ার , বই ইত্যাদির যৌক্তিক বিভাগ করা যায় না ।

দুই : ক্ষুদ্রতম উপজাতি বা অপরতম উপজাতির ( Infima species ) কোনাে যৌক্তিক বিভাগ হয় না । কেননা এ ধরনের পদকে নিম্নতম অন্য কোনাে উপজাতি বা উপশ্রেণিতে ভাগ করা যায় না । তাই অপরতম উপজাতির ক্ষেত্রে যৌক্তিক বিভাগ সীমাবদ্ধ ।

তিন : বিশিষ্ট সমষ্টিবাচক পদের যৌক্তিক বিভাগ হয় না । কেননা এই ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট পদটি বিভক্ত পদের ওপর প্রযােজ্য হয় না । যেমন : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রিয় প্রশ্মাগার । এটি একটি বিশিষ্ট সমষ্টিবাচক পদ । এ পদকে যৌক্তিকভাবে ভাগ করা যায় না ।

গ) যৌক্তিক বিভাগের নিয়মাবলি

যৌক্তিক বিভাগে একটি জাতি বা শ্রেণিবাচক পদকে তার অন্তর্গত বিভিন্ন উপজাতিতে ভাগ করা হয় । কোনাে জাতি বা শ্রেণিচক পদকে তার অন্তর্গত উপজাতিতে ভাগ করার সময় কতগুলাে নিয়ম মেনে চলতে হয় , যেগুলােকে যৌক্তিক বিভাগের নিয়ম বলে । যুক্তিবিদগণ যৌক্তিক বিভাগের জন্য ছয়টি মিয়মের কথা বলেছেন । এগুলাে হলাে

প্রথম নিয়মঃ

যৌক্তিক বিভাগে একটি জাতিবাচক পদকে বিভক্ত করতে হয় , কোনাে ব্যক্তি বা বস্তুকে নয় ।

Logical Division is always of a class and not of an individual .

যৌক্তিক বিভাগে একটি জাতিবাচক পদকে তার অন্তর্গত দুটি উপশ্রেণিতে বিভক্ত করা হয় । যার একটিতে ঐ পদের গুণ উপস্থিত থাকে , অন্যটিতে অনুপস্থিত থাকে । যেমন : মানুষ নামক জাতিবাচক পদকে শিক্ষার ভিত্তিতে শিক্ষিত মানুষ ’ ও অশিক্ষিত মানুষ ‘ পদে বিভক্ত করতে পারি ।

কিন্তু মানুষ হিসেবে হাসান ,

সাগর , নয়ন প্রভৃতি বিশিষ্ট ব্যক্তিতে ভাগ করতে পারি না ।

যৌক্তিক বিভাগের এ নিয়ম লঙ্ঘন করে কোনাে ব্যক্তি বা বস্তুকে তার অঙ্গ – প্রত্যঙ্গে কিংবা গুণসমূহে ভাগ করলে অঙ্গগত বাগুণগত বিভাগ অনুপপত্তি ঘটবে । যেমন : একটি গাছকে তার মূল , কাণ্ড , পাতা , ফুল , ফলে ভাগ করা অঙ্গগত বিভাগ অনুপপত্তির ( Fallacy of Physical Division ) দৃষ্টান্ত । পাশাপাশি একটি আপেলকে তার বর্ণ , গন্ধ , স্বাদ , আকৃতিতে ভাগ করা গুণগত বিভাগ অনুপপত্তির ( Fallacy of Metaphysical Division ) দৃষ্টান্ত ।

দ্বিতীয় নিয়মঃ

যৌক্তিক বিভাগে সর্বদা একটিমাত্র মূলনীতি অনুসরণ করতে হবে ।

Logical Division should be only one principle of division at a time .

যৌক্তিক বিভাগের ক্ষেত্রে মূলনীতি খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় । কোনাে পদকে বিভাজন করার ক্ষেত্রে অবশ্যই একটিমাত্র মূলনীতি অনুসরণ করতে হয় , কোনােভাবেই একের অধিক নয় ।

এ নীতির কারণে আমরা শিক্ষা মূলনীতির ভিত্তিতে,

মানুষ জাতিকে শিক্ষিত ’ ও ‘ অশিক্ষিত ’ এ দুটি উপজাতিতে ভাগ করতে পারি ।

সততার ভিত্তিতে ‘ সৎ ‘ ও অসৎ ‘ এ দুটি উপজাতিতে ভাগ করতে পারি । কিন্তু কোনােভাবেই মানুষকে ‘ শিক্ষা ’ ও ‘ সততা ‘ এ দুটি মূলনীতি অনুযায়ী , ‘ শিক্ষিত সৎ মানুষ ‘ ও অশিক্ষিত সৎ মানুষ ‘ পদে বিভক্ত করতে পারি না । যৌক্তিক বিভাগের এ নিয়ম লঙ্ঘন করলে সংকর বিভাগ অনুপপত্তি ( Fallacy of Cross Division ) ঘটবে ।

তৃতীয় নিয়মঃ

যৌক্তিক বিভাগে বিভাজ্য জাতির ব্যর্থ এবং বিভক্ত উপজাতিগুলাের ব্যর্থ পরস্পর সমান হবে ।

The sub – classes into which the term is divided , must be together co – extensive with the whole .

যৌক্তিক বিভাগ হলাে কোনাে পদের ব্যক্ত্যর্থের বিশ্লেষণ । এ বিশ্লেষণ প্রক্রিয়ায় জাতির ব্যর্থ এবং উপজাতিগুলাের ব্যর্থ পরস্পর সমান হয় । যেমন : বুদ্ধিবৃত্তির ভিত্তিতে ‘ জীব ‘ জাতিকে মানুষ ’ ও ‘ অন্যান্য প্রাণীতে ভাগ করলে বিভাজ্য জাতির ব্যক্ত্যর্থ বিভক্ত উপজাতিগুলাের ব্যর্থের চেয়ে কম হলে অতিসংকীর্ণ বা অব্যাপক বিভাগ অনুপপত্তি ( Fallacy of Too Narrow Division ) ঘটে । যেমন : ত্রিভুজকে যদি সমবাহু এবং সমদ্বিবাহু এই দুইভাগে ভাগ করা হয় তাহলে অব্যাপক বিভাগ অনুপপত্তি ঘটবে । কেননা এ বিভক্ত প্রক্রিয়া থেকে বিষমবাহু নামক ত্রিভুজ বাদ পরেছে । আবার , কোনাে ।

চতুর্থ নিয়মঃ

বিভাজ্য উপজাতিগুলাে পরস্পর বিচ্ছেদক হবে , যেন একটির সাথে অন্যটি মিশে না যায়

In a Logical Division , the sub – classes must not overlap , but must be mutually exclusive .

যৌক্তিক বিভাগে একটি শ্রেণিবাচক পদকে এমনভাবে বিভাজন করা হয় যেন উপজাতিগুলো পরস্পর বিচ্ছেদ হয় । অর্থাৎ একই সদস্য একাধিক উপজাতির মধ্যে থাকতে পারে না

একাদশ শ্রেণির ৭ম সপ্তাহের যুক্তিবিদ্যা এসাইনমেন্ট উত্তর

এইচএসসি ২০২২ সপ্তম সপ্তাহের এসাইনমেন্ট উত্তর পিডিএফ ডাউনলোড করতে নিচের বাটনে ক্লিক করুন

0 Comments

Submit a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Adsense

Categories

জনপ্রিয় পোস্ট সমূহ

Pin It on Pinterest

Share This